ঈশপের গল্প: ডুমুর ও দাঁড়কাক

ডুমুর ও দাঁড়কাক

একদা এক দাঁড়কাক ছিল। তার খুব ক্ষিধে পেয়েছিল। সে একটা ডুমুর গাছের ডাে এসে বসল। ইচ্ছে পাকা পাকা ডুমুরগুলো খাবো। কিন্তু তার ভাগ্য খারাপ ছিল, গাছের ডুমুরগুলো ছিল দস্তুর মতো কাঁচা। আর বেশ শক্ত ছিল। কাকের কিন্তু নড়বার নাম নেই। সে গাছের ডালে বসেই রইলো। ডুমুর পাকলেই সে খাবে।

এক খ্যাঁকশিয়াল সেখান দিয়ে যাচ্ছিলো। হঠাৎ তার নজরে পড়লো একটা দাঁড়কার সেই ডুমুর গাছের ডালে বসে আছে। সে কিছু না বলে চলে গেল। সন্ধেবেলা আবার থ্যাঁকশিয়ালটি ঐ পথ ধরেই বাড়ি ফিরছিল। হঠাৎ তখন তার ঐ ডুমুর গাছটির দিকে নজর পড়ল—সে দেখল সেই দাঁড়কাকটা তখনো ডুমুরগাছের ডালে বসে আছে। এবার আর খ্যাঁকশিয়াল চুপ করে না থেকে ঠায় বসে থাকা দাঁড়কাককে জিজ্ঞাসা করলো তুমি ওখানে অমন করে বসে আছো কেন?

দাঁড়কাক বললো—আমার খুব ক্ষিদে পেয়েছে। ডুমুরগুলো পাকলেই পাকা ডুমুর খেয়ে ক্ষিধে মেটাবো। এই কথা শুনে থ্যাকশিয়ালটি হো হো করে হাসতে লাগলো। সে বললো—আরে ভাই তুমি মিথ্যা আশার ফাঁদে পড়েছো। কবে ডুমুর পাকবে তার আশায় তুমি বসে আছো? দূর, দূর, বোকা কাহেকা।

উপদেশ ঃ অনেকেই আশার কুহকে ভুলে বৃথা সময় নষ্ট করে।

Leave a Comment